Breaking News

চুল পড়ার হাত থেকে বাঁচাবে এই ৭ খাবার, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা

বর্তমান দিনে চুল পড়ার সমস্যা নেই এরকম কাউকে খুঁজে পাওয়াই মুশকিল। পরিবেশ দূষণ, ভেজাল খাবার, স্ট্রেস, কাজের চাপ, প্রয়োজনের থেকে কম ঘুম সবই আমাদের চুল পড়ার জন্য দায়ী। কিন্তু ঘটনা হল এর কোনওটাকেই জীবন থেকে পুরোপুরি বাদ দিতে পারবেন না আপনি। আপনার জীবনে স্ট্রেসও থাকবে, কাজের চাপও থাকবে, দূষণও থাকবে।

তবে শরীর ঠিকমতো পুষ্টি পেলে চুল পড়ার হাত থেকে কিছুটা রেহাই পাওয়া সম্ভব বলে জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। চুল পড়ার হাত থেকে বাঁচতে কয়েকটি খাদ্যদ্রব্যকে আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখতে পরামর্শ দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এই খাবারগুলি হল —

পাতাওয়ালা শাকসবজি: সবুজ পাতাওয়ালা শাকসবজির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিগুণ রয়েছে। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় এগুলি রাখা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। সবুজ পাতাওয়ালা শাকসবজি আয়রন, পটাশিয়াম, ভিটামিন সি, ভিটামিন কে এবং ক্যালসিয়ামে সমৃদ্ধ। চুলের কোষকে সক্রিয় ও সুস্থ রাখতে আয়র অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। সেই কারণে পালংশাক, লেটুস, ব্রকোলি, বাঁধাকপি নিয়মিত ভাবে খান।

অ্যাভোকাডো: ক্যালসিয়াম, ভিটামিন বি১২, জিংক, রিবোফ্ল্যাভিন, থিয়ামিন, ভিটামিন এ, সি, ই, ফোলেট, নিয়াসিন, ভিটামি বি ৬, আয়রন এবং ম্যাগনেসিয়ামে সমৃদ্ধ অ্যাভোকাডো। এছাড়াও এর মধ্যে আছে প্রোটিন, ফাইবার এবং নটি এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড। এই সবই চুল পড়া কমিয়ে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।

ব্রাজিল নাট: ব্রাজিল নাটের মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণে সিলেনিয়াম নামে এক ধরনের মিনারেলষ এই মিনারেল চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে খুবই উপযোগী। সিলেনিয়াম নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে।

মাছ: ব্রাজিল নাটের মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণে সিলেনিয়াম নামে এক ধরনের মিনারেলষ এই মিনারেল চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে খুবই উপযোগী। সিলেনিয়াম নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে।

মাছ: মিষ্টি আলুর মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণ আয়রন, কপার, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং বেটা ক্যারোটিন। এগুলি চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখে, চুল পড়া কমায় এবং নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। বেটা ক্যারোটিন চুল ঝলমল করতেও সাহায্য করে।

সূর্যমুখীর বীজ: সূর্যমুখী ফুলের বীজে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি৫। এটি স্ক্যাল্পে রক্ত চলাচল বাড়াতে সাহায্য করে। এর ফলে নতুন চুল গজায়। শরীরে ভিটামিন বি৫-এর অভাব থাকলে চুল পড়ে যেতে পারে।

ওটমিল: ওজন কমাতে ওটস যে উপকারী, সে তো জানাই আছে। কিন্তু চুলের জন্যও ওটস অত্যন্ত উপকারী। ওটসে আছে বেটা-গ্ল‌ুক্যানস। এই উপাদানের উপস্থিতির কারণে ওটস শরীরের ইনসুলিন সেনসিটিভিটিকে উন্নত করে। এর ফলে চুলের স্বাস্থ্যও ভালো থাকে।

About Mokaddes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *