বাটলারের ব্যাটে উড়ে গেল ধোনির ‘মন্থর’ চেন্নাই

আগের দিন স্নায়ুক্ষয়ী দুটি ম্যাচ দেখেছিল আইপিএল। টাই হওয়া দুই ম্যাচে বিজয়ী খুঁজে বের করতে দরকার পড়েছিল তিনটি সুপার ওভারের। আজ সেই আইপিএল দেখল একতরফা এক ম্যাচ। স্বল্প রানের যে ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস।

‘আবুধাবির উইকেট মন্থর হয়ে পড়েছে’—ম্যাচ শুরুর আগেই বলেছিলেন চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। সেই ‘মন্থর’ উইকেটে আজ রান তোলার জন্য কী সংগ্রামই না করতে হলো চেন্নাই সুপার কিংসকে। পুরো ২০ ওভার খেলে ৫ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১২৫ রান করে ধোনির দল। স্কোরটা ১৫ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখেই পেরিয়ে যায় রাজস্থান রয়্যালস। ৪৮ বলে ৭০ রান করে অপরাজিত ছিলেন জস বাটলার।

দশম ম্যাচে পাওয়া চতুর্থ জয়ে সেরা চারে থেকে প্লে-অফে খেলার স্বপ্ন তাতে উজ্জ্বল হয়েছে রাজস্থানের। অন্যদিকে ধোনির চেন্নাই দশম ম্যাচে সপ্তম হারে পরে রইল পয়েন্ট তালিকার তলানিতে। নয় ম্যাচ খেলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবেরও চেন্নাইয়ের সমান ৬ পয়েন্ট। তবে নেট রান রেটের হিসেবেই সবার নিচে চেন্নাই।

পাওয়ার প্লেতে খুব একটা খারাপ করেনি চেন্নাই, ২ উইকেটে করেছে ৪৩ রান। এরপরই রান করতে হাঁসফাঁস করেছেন চেন্নাইয়ের ব্যাটসম্যানরা। চতুর্থ ওভারের পর আরেকটি বাউন্ডারি পেতে তাঁদের অপেক্ষা করতে হয়েছে ৫০ বল। শেষ ১৫ ওভারে দলটি পেয়েছে মাত্র ৬ বাউন্ডারি।

আইপিএলে ২০০তম ম্যাচ খেলতে নেমে ধোনি করেছেন ২৮ বলে ২৮ রান। মাত্র দুটিই চারই মারতে পেরেছেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। চেন্নাই যে ১২০ পার করেছে, এতে ছয়ে নামা রবীন্দ্র জাদেজার ৩০ বলের অপরাজিত ৩৫ রানের অবদানই বেশি। ৪টি চার মেরেছেন ভারতীয় অলরাউন্ডার। চেন্নাইয়ের হয়ে এ ছাড়া বলার মতো রান পেয়েছেন ওপেনার স্যাম কারেন। ইংলিশ অলরাউন্ডার ২২ রান করতে খরচ করেছেন ২৫ বল।

রাজস্থানের কোনো বোলারই ১ উইকেটের বেশি পাননি। তবে কার্তিক তিয়াগি ও বেন স্টোকস ছাড়া রানের লাগাম টেনে রেখেছিলেন অন্য বোলাররা। দুই লেগ স্পিনার শ্রেয়াস গোপাল ও রাহুল তেওয়াতিয়া ৪ ওভার করে বোলিং করে ১৪ ও ১৮ রান খরচায় নিয়েছে ১টি করে উইকেট। ইংলিশ ফাস্ট বোলার জফরা আর্চার ১ উইকেট নিয়েছেন ২০ রান দিয়ে।

রান তাড়াটা তেড়েফুঁড়েই শুরু করেছিলেন বেন স্টোকস। আউট হওয়ার আগে ১০ বলেই ৩ চারে ১৯ রান তুলে ফেলেন ইংলিশ অলরাউন্ডার। তৃতীয় ওভারের শেষ বলে চেন্নাই পেসার দীপক চাহার স্টোকসকে বোল্ড করে দেন। রাজস্থানের রান তখন ১ উইকেট ২৬।

স্কোর কার্ডে আর মাত্র ২ রান যোগ হতেই আরও দুই ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ফেলে রাজস্থান। জশ হ্যাজলউড রবিন উথাপ্পাকে (৯ বলে ৪ রা) ও চাহার ফিরিয়ে দেন ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যান সঞ্জু স্যামসনকে (৩ বলে ০)। দুজনই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন ধোনিকে।

২৮ রানে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকা চেন্নাইকে বাস্তবের জমিনে নামিয়ে আনেন জস বাটলার ও স্টিভ স্মিথ। তৃতীয় উইকেট জুটিকে ৯৮ রান যোগ করে দলকে জিতিয়ে তবেই ফেরেন দুজন। ৭০ রান করার পথে ৭টি চার ও ২টি ছক্কা মেরেছেন বাটলার । স্মিথ অবশ্য ২৬ রান করতে খেলেছেন ৩৪ রান।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *