স্তন ক্যানসার প্রতিরোধে স্ক্রিনিং

পুরো অক্টোবর মাসজুড়ে স্তন ক্যানসার প্রতিরোধে সচতনতা তৈরি করা হয়। প্রতি বছর বহু নারী স্তন ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছেন।

যেখানে বেশিরভাগ স্তন ক্যানসার প্রতিরোধ করা যায় কেবল প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে।

আসুন স্তন ক্যানসার সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় জেনে রাখি:

বিশেষজ্ঞরা জানান, ব্রেস্ট ক্ ক্যানসারের নির্দিষ্ট কোনো কারণ নেই। তবে পরিবারের মা, খালা, ফুপু অথবা দাদি-নানির ব্রেস্ট ক্যানসার থাকলে পরবর্তী প্রজন্মের এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে। এছাড়াও খুব অল্প বয়সে মিনিসট্রেশন হওয়া, বেশি বয়সে মেনোপজে গেলে, বাচ্চা না হলে অথবা বাচ্চাকে বুকের দুধ না দিলে ও শরীরে অতিরিক্ত মেদ জমলে ব্রেস্ট ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে বলে উল্লেখ করেন তারা।

স্তন ক্যানসার থেকে নিরাপদে থাকতে প্রথমে প্রয়োজন শনাক্ত করা। আর এজন্য স্ক্রিনিং-এর মাধ্যমে নিজেই স্তন ক্যানসার পরীক্ষা করতে পারেন । এই পরীক্ষাটি গোসলের সময়, আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে, বিছানায় শুয়ে যেভাবে ইচ্ছা, সেভাবেই করা যায়।

প্রতি মাসে নিজে যেভাবে পরীক্ষা করতে হবে-

স্তনের চারদিকে ছুঁয়ে দেখতে হবে ব্যথা, শক্ত চাকার মতো অনুভব হয় কি না,
কোনো স্থানের বর্ণ পরিবর্তন হয়েছে কি না অথবা কোনো অংশ উষ্ণ লাগে কি না
দু’টি স্তনের মধ্যে আকারে কোনো বড় পরিবর্তন লক্ষ্য বা স্তনের কোনো অংশের ত্বক ভেতরের দিকে কুঁচকে থাকলে এটাও খেয়াল রাখতে হবে
স্তনের বোঁটার কোনো অংশে চুলকানি
আছে অথবা র্যাশ উঠলে বা বোঁটার কোনো অংশ ভেতরের দিকে ঢুকে গেলেও কিন্তু চিন্তার কথা
এগুলোর মধ্যে যেকোনো লক্ষণ দেখা দিলে অবশ্যেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *