ম্যাচ না খেলেই কোহলির বেঙ্গালুর পয়েন্ট টেবিলের ৩ নাম্বার থেকে ২ নাম্বার স্থানে

ঘাড়ের উপর বড় রানের বোঝা চাপিয়ে দিয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসকে পর্যুদস্ত করল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। দুবাইয়ে ডু অর ডাই ম্যাচে শ্রেয়স আইয়ারদের ৮৮ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করেন ডেভিড ওয়ার্নাররা।

টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে হায়দরাবাদ নির্ধারিত ২০ ওভারে ২ উইকেটের বিনিময়ে ২১৯ রান তোলে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে দিল্লি ১৯ ওভারে ১৩১ রানে অল-আউট হয়ে যায়।

দীর্ঘদিন পর হায়দরাবাদ মাঠে নামায় ঋদ্ধিমান সাহাকে। ওয়ার্নারের সঙ্গে ইনিংসের ওপেন করতে নামেন ঋদ্ধি। পাওয়ার প্লে’র ৬ ওভারে দুই ব্যাটসম্যান অবিচ্ছদ্য থেকে ৭৭ রান তোলেন।

ওয়ার্নার ২৫ বলে হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। শেষমেশ সানরাইজার্স অধিনায়ক ৮টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৩৪ বলে ৬৬ রান করে আউট হন।

ঋদ্ধিমান ২৭ বলে ব্যক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। তিনি ১২টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৪৫ বলে ৮৭ রান করে উইকেট দেন।

মণীশ পান্ডে ৩১ বলে ৪৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। তিনি ৪টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন। উইলিয়ামসন নট-আউট থাকেন ১০ বলে ১১ রান করে। নরকিয়া ও অশ্বিন ১টি করে উইকেট নেন।

দিল্লির হয়ে ব্যাট হাতে সবথেকে বেশি ৩৬ রান করেন ঋষভ পন্ত। ৩৫ বলের ইনিংসে তিনি ৩টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন। এছাড়া অজিঙ্কা রাহানে ১৯ বলে ২৬, হেতমায়ের ১৩ বলে ১৬ ও তুষার দেশপান্ডে ৯ বলে অপরাজিত ২০ রান করেন। বাকিরা কেউই দু’অঙ্কের গণ্ডি টপকাতে পারেননি।

রশিদ খান ৪ ওভারে মাত্র ৭ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট দখল করেন। ২টি করে উইকেট নেন সন্দীপ শর্মা ও টি নটরাজন। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন শাহবাজ নদিম, জেসন হোল্ডার ও বিজয় শঙ্কর। ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন ঋদ্ধিমান।

এই জয়ের সুবাদে ১২ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে প্লে-অফের দৌড়ে টিকে রইল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। দিল্লী ক্যাপিটালসের এই হারে অবশ্যই খুশী হয়ে রয়েল চ্যালেঞ্জার বেগালুর।

কোহলির বেঙ্গালুর ১১ ম্যাচে ৭ জয় নিয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে এতো দিন পয়েন্ট টেবিলের ৩ নাম্বার অবস্থানে ছিল। কিন্তু আজ দিল্লী বড় ব্যবধানে হারার কারণে রান রেটে পিছিয়ে গিয়েছে বেঙ্গালুরের থেকে। ফলে বেঙ্গালুর ম্যাচ না খেলেই পয়েন্ট টেবিলের ২ নাম্বার স্থানে চলে গিয়েছে।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *