১৩টি করে ম্যাচ খেলেছে কলকাতা, পাঞ্জাব ও রাজস্থান; সমান পয়েন্ট থাকার পরেও প্লে-অফে এগিয়ে যে

শুক্রবার কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে হারিয়ে নিজেদের প্লে অফের আশা বাঁচিয়ে রাখল রাজস্থান রয়্যালস ৷ পাশাপাশি ক্ষীণ আশা রইল কেকেআরেরও৷

এদিন কাজে এল না গেইলের বিধ্বংসী ৯৯৷ ১৭.৩ ওভারে মাত্র ৩ উইকেটে জয়ের প্রয়োজনীয় রান তুলে নিল স্মিথের রাজস্থান৷

এদিন রাজস্থানের হয়ে বেন স্টোকস ২৬ বলে ৫০ করে শুরুটা দারুণ করে দেন৷ সঙ্গী ছিলেন রবিন উথাপ্পা৷ ২৫ বলে ৪৮ রান করেন সঞ্জু স্যামসন৷ এছাড়া অধিনায়ক স্টিভ স্মিথও উপহার দেন ঝকঝকে ও ক্লাসি ইনিংস ৷

ফলে গেইলের একার বিধ্বংসী ইনিংসের জবাবে এদিন রাজস্থান রয়্যালস দেখায় দলের পারফরম্যান্সের জোর৷ সব ব্যাটসম্যানই ব্যাট হাতে নিজের দায়িত্ব সফল ভাবে পালন করেন৷

এদিন টসে জিতে রাজস্থান রয়্যালস ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়৷ এদিনও ব্যাট হাতে কিংস ইনিংসে সকলের ত্রাস হয়ে ওঠেন ক্রিস গেইল৷

মেজাজটাই তো আসল রাজা- ক্রিস গেইল সম্পর্কে এটা সবসময়েই খাটে৷ শুক্রবার রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে ম্যাচে একাই নিজের ব্যাট দিয়ে সব লাইমলাইট ছিনিয়ে নিলেন ক্রিস গেইল৷এদিন গেইলের ৯৯ রানের ইনিংসে রয়েছে ৮ টি ছয়৷

আর এরই সাহায্যে বিশ্ব ক্রিকেটে বিরল নজির গড়লেন গেইল৷ ১০০০ টি ছয় মারলেন ক্যারিবিয়ান সিংহ৷ ৪১০ টি টি টোয়েন্টি ম্যাচে তাঁর মোট ছয় ১০০১ টি৷এদিকে এদিন একটুর জন্য শতরান মিস করেন গেইল৷

ব্যাস সিংহের নিজের প্রতি রাগের প্রকাশ দেখল বিশ্বের নানা প্রান্তে থাকা কোটি কোটি আইপিএল দর্শক৷ জোফ্রা আর্চারের বলে বোল্ড হওয়ায় ধাঁই করে নিজের ব্যাটটাই ছুঁড়ে দেন৷আসলে আরও একটা ১০০ রান মাঠে ফেলে রেখে আসতে চাননি ক্যারিবিয়ান কিং৷

৪১ বছরের মেজাজ তখন তুঙ্গে৷ তবে পেশাদারিত্ব ভোলেলনিন তিনি যাঁর বলে আউট হয়েছেন সেই জোফ্রা আর্চার যখন করমর্দনের জন্য হাত বাড়িয়ে দেন তখন স্পোর্টিংলি হাত বাড়িয়ে দেন তিনি৷ তবে নাটকের এরপরেও বাকি ছিল৷

তিনি নিজের হেলমেটটি খুলে ব্যাটের মাথায় পড়িয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি৷ এদিকে মূলত এদিন তাঁর অনবদ্য ব্যাটিংয়ের সুবাদে ৪ উইকেট হারিয়ে ২০ ওভারে ১৮৫ রান করে কিংস ইলেভেন পঞ্জাব৷

এদিনের গেইল মাত্র ৬৩ বলে ৯৯ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন৷ এদিনের তাঁর ইনিংস সাজানো ৬ টি চার ও ৮ টি ছয় দিয়ে৷

এদিন তিনি জোফ্রা আর্চারের বলে আউট হয়ে যান৷ এদিকে ইনিংস শেষে অবশ্য আর আক্ষেপ না করে হাসতে হাসতে গেইল বলেন তাঁর কাছে ওটা ৯৯ নয় ১০০ ই৷

পাঞ্জাব ও রাজস্থানের ম্যাচ শেষে প্লে-অফের যাওয়ার সমীকরণ আরও কঠিন হয়ে গেলো। কলকাতা, পাঞ্জাব ও রাজস্থান ১৩টি করে ম্যাচ খেলেছে। প্রতিটি দলই ১২ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্টস টেবিলে অবস্থান করছে।

তবে এই তিন দলের মধ্যে -০.১৩৩ নেট রান রেট নিয়ে এগিয়ে আছে পাঞ্জাব। তারপর -০.৩৭৭ নেট রান রেট নিয়ে রয়েছে রাজস্থান এবং অন্য দিকে কলকাতার নেট রান রেট -০.৪৬৭।

তবে আইপিএলে ১৩-তম আসরে এখন পর্যন্ত মাত্র ১টি দল নিশ্চিত ভাবে প্লে-অফ নিশ্চিত কড়তে পেরেছে। মুম্বাই ইন্ডীয়ান্স ১৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্টস টেবিলের প্রথম স্থানে রয়েছে।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *