হার্ট আ্যাটাক আর প্যানিক অ্যাটাক দু‘টোই কি এক? জানতে পড়ুন

প্যানিক আ্যাটাক এবং হার্ট আ্যাটাকের সংকেত এক হওয়ায় দু‘টোর মধ্যে তফাৎ করাটা বেশ মুসকিলের৷ যেমন, ঘেমে যাওয়া, বুকে ব্যাথা অনুভব, কৌতুক অনুভূতি, নিশ্বাস নিতে সমস্যা এবং বমি বমি ভাব৷ দু‘টি আ্যাটাকের ক্ষেত্রেই এই একই সংকেত দেখা যায়৷ এই কারণেই সমস্যা হয় থাকে দু‘টোর মধ্যে তফাত করতে৷ কিন্তু প্যানিক আ্যাটাক এবং হার্ট আ্যাটাকের মধ্যে সাদৃশ্য থাকলেও দু‘টিকে একে অপরের থেকে আলাদা করা যেতে পারে৷

হার্ট অ্যাটাক, তা কী ভাবে বুঝবেন?

সঙ্কীর্ণ ব্যথা

হার্ট অ্যাটাকের সময় যে ব্যথাটি অনুভব করা হয় তা সংকোচনমূলক৷ ঠিক বুকের মধ্যভাগ থেকে শুরু হয় ব্যাথ৷ তারপর ধিরে ধিরে বাদিকের হাত দিয়ে নেমে পিছনের দিকে যায়৷ হার্ট অ্যাটাকের সময় যে ব্যথা শুরু হয় সেটি ছড়িয়ে পড়তে পারে দাঁত, ঘাড় এবং চোয়ালেও৷ এই ব্যাথার প্রক্রিয়াটি চলে পাঁচ মিনিট৷ কিন্তু এই ব্যাথা ক্রমশ বাড়তে থাকলে মানুষের মধ্যে একটা আতঙ্কের সৃষ্টি হয় যে এর ফলে মৃত্যু ঘটতে পারে৷ আবার সেই সময় মানুষ খুব দ্রুত নিশ্বাস নিতে শুরু করে৷ আর কখনি সেটা আতঙ্কে রুপান্তরীত হয়ে যায়৷

প্যানিক অ্যাটাক, তা কী ভাবে বুঝবেন?

সকলেরই প্যানিক অ্যাটাক সম্পর্কে একটি ভুল ধারণা রয়েছে৷ যদিও সেটা প্রথম অবস্থাতে দেখা যায়৷ প্যানিক অ্যাটাক সংকেত গুলি সাধারণত ১০ মিনিট পড় থেকে শুরু হয়৷ প্যানিক অ্যাটাক শুধু মাত্র বাঁ দিকের হাত থেকেই শুরু হয় তা নয়৷ ওই ব্যাথা অনুভুত হতে পারে ডান পায়ের আঙুল থেকেও (শুধু মাত্র প্যানিক অ্যাটাকের ক্ষেত্রে)৷

প্যানিক অ্যাটাক হয় সাধারনত যখন মানুষ কোনও বিষয়ে অতিরিক্ত ভয়ে পেয়ে থাকে৷

আপনি যদি কখনও এই দু‘ই অ্যাটাক মধ্যে একটিরও মুখমুখি হয়ে থাকেন তাহলে খুব তাড়াতাড়ি এক জন দক্ষ ডাক্তারের পরামর্শের প্রয়োজন৷

প্যানিক আক্রমণের ক্ষেত্রে, আপনি যদি সময়মত চিকিৎসা না করান, তবে সে ক্ষেত্রে আরও খারাপ হতে পারে এবং এই ধরনের হামলা প্রায়ই ঘটতে পারে৷ সময়মত চিকিৎসা এবং পরীক্ষার মাধ্যমে আপনি একটি উন্নত মানের জীবন পেতে পারেন৷

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *