প্রাথমিকের শিক্ষক-কর্মচারীদের যেসব তথ্য চেয়েছে সরকার

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরি স্থায়ীকরণে নতুন করে তথ্য চেয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। রবিবার (১ নভেম্বর) এ সংক্রান্ত অফিস আদেশ পাঠানো হয়। বিভাগীয় উপ-পরিচালক, জেলা শিক্ষা অফিসার ও দেশের সকল প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের (পিটিআই) সুপারিনটেনডেন্টকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়।


অফিস আদেশে বলা হয়, প্রায় লক্ষ করা যাচ্ছে মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন দফতর থেকে বিভিন্ন সময় কর্মচারীদের চাকরি স্থায়ীকরণের জন্য বিচ্ছিন্নভাবে অসম্পূর্ণ তথ্যসহ পত্র পাওয়া যায়। তাছাড়া বিচ্ছিন্নভাবে পাওয়া পত্রে এক একজন করে কর্মচারীর চাকরি স্থায়ীকরণ করা তাৎক্ষণিকভাবে সম্ভব হয় না।


এমতাবস্থায় মাঠ পর্যায়ের দফতরগুলোতে রাজস্ব খাতে নিয়োগ পাওয়া যেসব কর্মচারীর চাকরির মেয়াদ দুই বছর অতিক্রান্ত হওয়ার পর এখনও চাকরি স্থায়ীকরণ করা হয়নি, তাদের চাকরি স্থায়ীকরণের জন্য তথ্য পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হলো।
চাকরি স্থায়ী করতে যেসব তথ্য পাঠাতে হবে:


১) কর্মচারীর আবেদন


২) চাকরির খতিয়ান বইয়ের সত্যায়িত ফটোকপি।

৩) বিগত দুই বছরের বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন (এসিআর)।


৪) নিয়োগপত্র ও যোগদানপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।


৫) বিভাগীয়/ফৌজদারি/দুদকের মামলা সংক্রান্ত তথ্য


৬) সন্তোষজনক চাকরির প্রত্যায়ন।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *