রোগা হতে চান, অক্ষয়ের কথা মেনে চলুন

বলিউডের সুপার ফিট সুপারস্টার হিসেবে সবার প্রথমে অক্ষয় কুমারের নাম উঠে আসে। এমনকি বহু তরুণ অভিনেতা ফিটনেসের ক্ষেত্রে অক্ষয়কে অনুসরণ করেন। এই বলিউড সুপারস্টার লাখ লাখ তরুণকে ফিটনেসের ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করেন। পঞ্চাশোর্ধ্ব এই বলিউড নায়ক আজও তরুণ তুর্কি। নিশ্চয় জানতে ইচ্ছা করছে অক্ষয়ের ফিটনেস রহস্য। তবে অক্ষয় এ ব্যাপারে খোলা খাতা। তিনি নিজেই ফাঁস করেছেন তাঁর এই তারুণ্যে ভরা যৌবনের কথা। তাই রোগা হতে বা বাড়তি ওজন ঝেড়ে ফেলতে চাইলে অক্ষয়ের পথে অনায়াসে হাঁটতে পারেন।

অক্ষয় কুমার
অক্ষয় কুমারছবি: টুইটার হ্যান্ডেল
বিজ্ঞাপন

রোজ শরীরচর্চা করুন

নিজেকে ফিট রাখার জন্য শরীরচর্চা খুব জরুরি বলে মনে করেন অক্ষয়। এই বলিউড সুপারস্টার সবাইকে পরামর্শ দেন রোজ এক ঘণ্টা করে এক্সারসাইজ করার। তাঁর বক্তব্য, নিদেনপক্ষে খোলা মাঠে গিয়ে এক ঘণ্টা হেঁটে আসুন। অক্ষয় একাধিকবার সবার কাছে আবেদন করেছেন যে সুস্থ থাকার জন্য নিজের শরীরকে অন্ততপক্ষে এক ঘণ্টা দিতে। তিনি নিজেও নিয়মিত এক ঘণ্টা ঘাম ঝরান। রোজ সকালে অক্ষয় এক ঘণ্টা দৌড়ান। আবার রোজ এক ঘণ্টার মতো সাঁতার কাটেন। তবে এখানেই শেষ নয়। নিজেকে ফিট রাখতে আরও অনেক কিছু করেন এই বলিউড তারকা। অক্ষয় স্ট্রেচিং, যোগব্যায়াম, অ্যারোবিকসসহ নানান শারীরিক কসরত করেন। হাতের পেশি মজবুত করার জন্য তিনি ভলিবল খেলেন।

সাতটার মধ্যে ডিনার
অক্ষয় ঘড়ির কাঁটা ধরে চলতে ভালোবাসেন। এক সুশৃঙ্খল জীবনযাপনে তিনি অভ্যস্ত। তাই তিনি সবকিছু ঘড়ির কাঁটা ধরে করেন। এই বলিউড সুপারস্টার বলেন, শরীরের মেদ ঝরানোর জন্য সন্ধ্যা সাতটার মধ্যে রাতের খাওয়াদাওয়া সেরে ফেলা উচিত। এরপর আর কিছু খাওয়া যাবে না। এর কারণ, রাতের দিকে আমাদের শরীরের পৌষ্টিকতন্ত্র ধীরগতিতে কাজ করে। তাই বেশি রাত করে খেলে শরীরে তার কুপ্রভাব পড়তে পারে। আর শরীরে দ্রুত মেদ জমে। অক্ষয় শুটিং সূত্রে বাইরে থাকলেও সন্ধ্যার আগে ডিনার সেরে ফেলেন। আর রাতে কোনো বলিউডি পার্টিতে তাঁকে দেখা যায় না।

অক্ষয় কুমার
অক্ষয় কুমারছবি: টুইটার হ্যান্ডেল
জাঙ্ক ফুড থেকে দূরে
অক্ষয় ওজন কমানোর ক্ষেত্রে সব সময় সবাইকে জাঙ্ক ফুড থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দেন। এ প্রজন্মের তরুণদের জাঙ্ক ফুডের প্রতি প্রবল আকর্ষণ। আর প্রায়ই জাঙ্ক ফুড খেলে ওজন কমানো মুশকিল হয়। শুধু জাঙ্ক ফুড নয়, মিষ্টিজাতীয় খাবার অক্ষয়ের ডায়েটে থাকে না। এই ধরনের খাবার থেকে শরীরে ক্যালরির মাত্রা বেড়ে যায় আর শরীরে বাড়তি মেদ জমা হয়।

বিজ্ঞাপন

ব্যালেন্স ডায়েট হওয়া জরুরি
ওজন কমানোর জন্য ব্যালেন্স ও স্বাস্থ্যসম্মত ডায়েট নেওয়া অত্যন্ত জরুরি বলে মনে করেন অক্ষয় কুমার। সম্প্রতি এই বলিউড সুপারস্টার ভেগানে পরিণত হয়েছেন। অক্ষয়ের ফিটনেস ফান্ডা ‘ইট রাইট অ্যান্ড লাইফ হেলদি’। ঘরের তৈরি হেলদি খাবার খেতে তিনি বেশি পছন্দ করেন। তবে খাবার সুস্বাদু হওয়া চাই। তাই তাঁর ডায়েটে স্বাদ আর স্বাস্থ্য দুটিই বজায় থাকে।

সাধারণত অক্ষয়ের দিন শুরু হয় পরোটা দিয়ে। এ ছাড়া সঙ্গে থাকে তাজা ফলের রস। ফলের রসের ওপর নাট ও বেরিজ টপিং দিয়ে খেতে তিনি ভালোবাসেন। ভোরের ফ্লাইট ধরতে হলে অক্ষয়ের সঙ্গে থাকে সবজির পুডিং ও নানা ধরনের বেরিজ। পাউরুটির টোস্টের ওপর অ্যাভাকাডোর পেস্ট দিয়ে খেতে দারুণ পছন্দ করেন এই বলিউড নায়ক। কাঁচা মরিচকুচি, ধনেপাতাকুচি, নুন, কালো মরিচগুঁড়া দিয়ে বানানো মুগ ডালের চিলা প্রায়ই তাঁর ডায়েটে থাকে। আর মুগের চিলারের সঙ্গে থাকে ধনেপাতা-পুদিনাপাতার চাটনি। কখনো–সখনো অক্ষয়ের ডায়েটে থাকে ‘ভেগান পাস্তা’। টফু ও পালংশাকের সস দিয়ে বানানো হয় এই বিশেষ পাস্তা। এ ছাড়া গ্রিল্ড সবজি বা ভাত-থাই কারিও খান তিনি।

অক্ষয় কুমার
অক্ষয় কুমারছবি: টুইটার হ্যান্ডেল
ঘি খাওয়া জরুরি
অক্ষয় মনে করেন রোজ ডায়েটে ঘি থাকা প্রয়োজন। ওজন কমানোর জন্য তিনি ঘি খাওয়ার পরামর্শ দেন। বারবার খেলে ওজন বাড়ার প্রবণতা থাকে। ঘি খাওয়ার ফলে পেট দীর্ঘক্ষণ ভরা থাকে। আর বারবার খাওয়ার প্রবণতা কমে। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে। আর শরীরে মেদ জমে না। রোজকার ডায়েটে ঘি থাকলে শরীরের হাড়ও মজবুত হয়।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *