হলুদ মেশানো চা পানে যেসব উপকার

সকালে এক কাপ চা দিয়ে দিন শুরু করেন অনেকে। আর অফিসে, আড্ডায় এবং অতিথি আপ্যায়নে তো চায়ের জুড়ি নেই।চায়ের স্বাদ বাড়াতে মধু, লেবু মিশিয়ে খেয়ে থাকি আমরা। কিন্তু কখনও কি চায়ের সঙ্গে এক চিমটে হলুদ মিশিয়ে খেয়েছেন।হলুদের উপকারিতার কথা আমরা অনেকেই জানি। কিন্তু চায়ের সঙ্গে এক চিমটে হলুদ পানে কী কী উপকার পাওয়া যায় তা আমরা অনেকেই জানি না।এই চা বানানো যেমন সহজ, তেমনি সুস্বাদু। আর হলুদ মেশানো চা পানে অনেক রোগব্যাধির প্রকোপ কমে।আসুন জেনে নিই হলুদ মেশানো চা পানে যেসব রোগের প্রকোপ কমে-

রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়: এক চিমটে হলুদ মেশানো চা রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। হলুদে উপস্থিত কারকিউমিন রক্তে জমতে থাকা কোলেস্টেরলের মাত্রাকে কমিয়ে দেয়। ফলে হার্টঅ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে।

দৃষ্টি শক্তি ভালো হয়: দৃষ্টি শক্তি বাড়ানোর বিশেষ সহায়তা কারী উপাদান হলুদ। হলুদ চোখের রেটিনাকে রক্ষা করে। ফলে দৃষ্টি শক্তি হারানোর ভয় থাকে না।

ত্বক উজ্জ্বল করে: নিয়মিত হলুদ চা পানে ত্বক দীর্ঘ দিন উজ্জ্বলতা ধরে রাখে। এ ছাড়া রূপ চর্চায় কাঁচা হলুদের ব্যবহার প্রাচীনকাল থেকে চলে আসছে।

ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়: হলুদের ভেতরে থাকা অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি প্রপার্টিজ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরে ক্যান্সার কোষ জন্মাতে দেয় না। ফলে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কমে।

হজম ক্ষমতা বাড়ায়: হলুদ চা হজম ক্ষমতা বাড়ায়, স্মৃতিশক্তির বিকাশ ঘটায়, ওজন নিয়ন্ত্রণ করে, মাথার খুশকি সমস্যা দূর করে এবং আর্থ্রাইটিসের ব্যথা কমায়।

যেভাবে বানাবেন হলুদ চা: এক কাপের একটু বেশি পরিমাণ পানি নিয়ে গরম করুন। এর পর গরম পানিতে অল্প পরিমাণে (এক চিমটে) হলুদ মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। ফুটানো পানি ১০ মিনিট রেখে দিন। তার পর ছেঁকে পানিতে গোলমরিচ, লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে নিন। ব্যস, তৈরি হয়ে গেল হলুদ চা।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *