১০ জনের খাবার খেয়ে তিনদিন টয়লেটেই কাটান যুবক

৩৫ বছর বয়সী ভম্বল শীল। যিনি এক ঘুমেই কাটিয়ে দেন টানা সাতদিন। আর টয়লেটে গেলেও দু-তিনদিন ঘুমিয়ে থাকেন। এক বসায় খেতে পারেন ১০ জনের খাবার। শুধু তাই নয়, গোসলে গেলেও লাগে কয়েক ঘণ্টা। তবে অদ্ভুত এ মানুষটির চলাফেরা আর কথা-বার্তা শুনে বোঝার কোনো উপায় নেই।
ভম্বল শীলের বাড়ি মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার কৃঞ্চপুর গ্রামে। প্রায় ২০ বছর ধরে এমন অস্বাভাবিক জীবন-যাপন করছেন এ যুবক।

চিকিৎসকরা জানান, এটি একটি জটিল মানসিক রোগ। ভালো চিকিৎসা পেলে এ রোগ থেকে সুস্থ হওয়া সম্ভব। তবে চিকিৎসা করানোর মতো সেই টাকা নেই ভম্বল শীলের পরিবারের।

স্বজনরা জানান, বেশিরভাগ সময়ই ঘুমিয়ে কাটেন ভম্বল শীল। এক ঘুমে কাটিয়ে দেন পুরো সপ্তাহ। মাঝে মধ্যে উঠে টয়লেটে যান। তবে সেখানে গিয়েও ঘুমিয়ে পড়েন। টানা দু-তিনদিন টয়লেটেই কাটে। গোসলের জন্য একবার পুকুরে নামলে সকাল পেরিয়ে বিকেল হয়।

ভম্বল শীলকে দেখতে জীর্ণশীর্ণ মনে হলেও একাই খেতে পারেন কয়েকজনের খাবার। তাই ঠিকমতো খাবার দিতে পারেন না স্বজনরা। তবে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে গেলে পেটভরে খেতে পারেন ভম্বল।

ছোটবেলা থেকে স্বাভাবিকই ছিলেন ভম্বল। ১৫ বছর বয়স পার হলে ধীরে ধীরে তার আচরণে পরিবর্তন আসতে থাকে। তবে টাকার অভাবে ভম্বলের সুচিকিৎসা করা হয়নি।

মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মাহবুবুর রহমান বলেন, ভম্বল জটিল মানসিক রোগে আক্রান্ত। দ্রুত চিকিৎসা করালে সুস্থ হয়ে উঠবেন।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *