Breaking News

আজ থেকেই বালিশের নীচে রাখুন এক কোয়া রসুন ! ফল মিলবে হাতে নাতে…

খাবারে স্বাদ বাড়াতে হলে রসুন ছাড়া কোনও গতি নেই। তার উপরে যদি কষা মাংস বা কোনও মুখরোচক খাবার তৈরি করতে চান তাহলে রসুনের কোনও বিকল্প হয় না। কিন্তু রসুন শুধু স্বাদ বাড়াতেই নয়। স্বাস্থ্যের জন্যও বেশ উপকারী। রসুনের নানা গুণ রয়েছে। খেলে সেই উপকারগুলি পাওয়া যায়। কিন্তু শুধুমাত্র শরীরের সংস্পর্শে রাখলেও রসুনের নানা উপকার পেলে। তাই রোজ রাতে বালিশের তলায় এক কোয়া কাঁচা রসুন রাখুন। হতাশা দূর হয় বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। যাঁরা অনিদ্রায় ভোগেন, তাঁদের জন্যও এই রসুন বিশেষ উপকারী। কারণ রসুন মন সুস্থ ও সতেজ রাখতে পারে। বিছানার তলায় বা বালিশের তলায় রেখে ঘুমোলে স্বস্তি পাবেন।

কিন্তু শুধু খেয়েই নয়, রসুনের সংস্পর্শে থাকলেও এমন অনেক উপকার পাওয়া যায়। তাই রাতে ঘুমনোর সময়ে বালিশের তলায় এক কোয়া কাঁচা রসুন রেখে ঘুমোন। অনিদ্রায় ভুগলেও এই টোটকা ব্যবহার করে দেখতে পারেন। বাতের ব্যথা থেকে দূরে থাকতেও বালিশের নীচে এক কোয়া রসুন রেখে ঘুমোলে ফল পাওয়া যায়।

রসুনে কী কী উপকার পাবেন-
যাঁদের ঠান্ডা লেগে যায় তাঁরা রাতে ঘুমনোর আগে একটু কাঁচা রসুন খেলে উপকার পাবেন। নাক বন্ধ থাকলে এই টোটকা কাজে দেবে। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এক কোয়া কাঁচা রসুন চিবিয়ে খান। এতে হজমের সমস্যা থাকলে উপকার পাবেন। বাতের ব্যথাতেও উপকার পাবেন। এছাড়া লিভারের সমস্যা হলেও সঠিক পরিমাণে কাঁচা রসুন খেতে পারেন। রসুনে পর্যাপ্ত পরিমাণে অ্যান্টি বায়োটিক থাকে।

নিজের যৌবন চিরকাল ধরে রাখতে চান? তা হলে রসুন খান। কারণ রসুনে আছে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা স্কিনকে সতেজ রাখে। স্কিন এজিং-এর একটা বড় কারণ হল ক্ষতিকর সূর্যরশ্মি। রিঙ্কেল, ফাইন লাইনস, এজ স্পট, ডার্ক স্পট থেকে স্কিনকে দূরে রাখে রসুন। শুধু কাঁচা রসুন ১ কোয়া মধু ও লেবুর সাথে চিবিয়ে খেতে হবে। তা হলেই দেখতে পাবেন রসুনের কেরামতি।

রসুন যেমন চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে, তেমনই অতিরিক্ত চুল পড়াও নিয়ন্ত্রণ করে। কয়েকটা রসুনের কোয়া কেটে নিয়ে স্ক্যাল্পে ঘষুন। বা রস ও করে নিতে পারেন। এই রস সপ্তাহে দু’দিন লাগান। এক মাসের মধ্যেই ফল পাবেন। এ ছাড়া অলিভ অয়েলের মধ্যে রসুন ভালো করে ফুটিয়ে সেই তেলটা স্ক্যাল্পে ভালো করে ম্যাসাজ করুন। চুল পড়া বন্ধ হতে বাধ্য।

অল্প বয়সেই চুল পেকে যাচ্ছে? বাঁচার একমাত্র উপায় রসুন। কারণ রসুন এই অকালপক্কতা কমাতে দারুণ উপকারী। এর কারণ এতে থাকা প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, যেটা অকালপক্কতা নিয়ন্ত্রণ করে। এর জন্য কাঁচা রসুন চিবিয়ে খেলে তো ভালোই। সঙ্গে আরেকটি পদ্ধতিও দেখতেও পারেন। নারকেল তেলের মধ্যে কয়েক কোয়া রসুন ও একটু গোলমরিচ গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এবার কম আঁচে ফুটিয়ে নিন। তেল ঠান্ডা হলে এটা ভিজে চুলে লাগান। ২০ মিনিট পর চুল ধুয়ে নিন। চুল থাকবে কালো ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *