প্রতিদিন টমেটো খেলে দূর হবে অনেক সমস্যা

টমেটো খুব পরিচিত একটি সবজি। যদিও এটি একটি ফল কিন্তু সবজি হিসেবে এর পরিচিতি বেশি। বাংলাদেশি এটি বিলাতি বেগুন নামে জনপ্রিয়। ছোট্ট একটি টমেটোর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ। এটি যেমন সবজি হিসেবে রান্না করে খাওয়া যায়, তেমন ফল হিসেবে কাঁচা খাওয়া যায়। স্যালাড এ টমেটোর জুড়ি মেলা ভার। সাধারণত শীতকালীন সবজি এটি। তবে সারা বছরই আমাদের দেশে টমেটো পাওয়া যায়। বাঙালির রান্নাঘরে মনে হয় টমেটো ছাড়া কোন পদ ই রান্না করার উপায় নেই। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক এই জনপ্রিয় টমেটোর কি কি গুণাবলী রয়েছে।

১) এক কাপ পরিমান পাকা টমেটোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ,সি, কে , পটাসিয়াম।সুতরাং টমেটো খাওয়া আপনার শরীরের জন্য কতটা ভালো তা হয়তো আমার বলে দেওয়ার অপেক্ষা রাখে না।

২) যাদের স্কিনের সমস্যা রয়েছে তারা অনেকেই টমেটোর রস মুখে লাগান। চর্মরোগ প্রতিরোধের জন্য টমেটোর উপকারিতা প্রচুর। টমেটোর রস দিনে দুই থেকে তিনবার লাগালে আপনার চর্ম রোগের সমস্যা খুব তাড়াতাড়ি কমে যেতে পারে।

৩) নিজের বয়সের ছাপ লুকানোর জন্য টমেটোর রস খুব গুরুত্বপূর্ণ। টমেটো রসের সাথে চিনি মিশিয়ে প্রতিদিন মুখে মাক্স হিসেবে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার খরখরে ত্বক আস্তে আস্তে কোমল এবং মসৃণ হবে। এবং আপনার ত্বক থেকে বয়সের ছাপ আস্তে আস্তে চলে যাবে।

৪) এখন প্রতিটা মানুষের প্রধান সমস্যা উচ্চ রক্তচাপ। কিছুতেই সেটাকে কন্ট্রোল করা যায় না। তবে আপনি যদি প্রথম থেকে নিয়মিত দিনে দুটি করে টমেটো খালি পেটে খান এবং সাথে মিশিয়ে নিন অল্প চিনি। উচ্চ রক্তচাপ পালাতে বাধ্য।

৫) খেতে গিয়ে আমাদের অনেক সময় কামড় করে মুখে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। সেখান থেকে সেটি ঘায়ে পরিণত হয়। কিছু খাওয়া যায় না। এই সমস্যা থেকে আপনাকে একমাত্র মুক্ত করতে পারে টমেটোর রস । সকাল সন্ধা এক কাপ করে টমেটোর রস খান। মুখের ক্ষত সেরে যাবে।

About Mukshedul Hasan Obak

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *